21/01/2022

ভাতা বাড়ল বিচারপতিদের

1 min read

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ


উচ্চ আদালতের বিচারকদের বেতন সংক্রান্ত সামরিক আমলের অধ্যাদেশ বাতিল করে সংসদে দুটি নতুন বিল পাস হয়েছে। এতে করে বিচারকদের বেতনের সঙ্গে নিরাপত্তা ও বাবুর্চি ভাতা যুক্ত হবে।

রবিবার আইনমন্ত্রী আনিসুল হক  সংসদে ‘বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের বিচারক (পারিতোষিক ও বিশেষাধিকার) বিল-২০২১’ এবং ‘সুপ্রিম কোর্টের বিচারক (ভ্রমণ ভাতা) বিল-২০২১’ পৃথকভাবে পাসের প্রস্তাব করেন।

স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী বিলের ওপর দেওয়া জনমত যাচাই-বাছাই কমিটিতে পাঠান এবং সংশোধনী প্রস্তাবগুলোর নিষ্পত্তির পর বিলটি ভোটে দিলে তা কণ্ঠেভোটে পাস হয়।

শনিবার বিলটি সংসদে উত্থাপন করেন আইনমন্ত্রী।

এর আগে ২০১৬ সালে বিচারকদের বেতন ও ভাতা বাড়ানো হয়।

বর্তমানে প্রধান বিচারপতি এক লাখ ১০ হাজার টাকা, আপিল বিভাগের বিচারক এক লাখ পাঁচ হাজার টাকা এবং হাইকোর্ট বিভাগের বিচারক ৯৫ হাজার টাকা বেতন পান। এছাড়া বেতনের ৫০ শতাংশ হারে বিশেষ ভাতা পান তারা, যা নতুন আইনেও বলবৎ থাকছে।

বিলে প্রধান বিচারপতির ‘নিয়ামক ভাতা’ বাড়ানো হয়েছে। বর্তমানে প্রধান বিচারপতি মাসে ১২ হাজার টাকা হারে এই ভাতা পান। নতুন আইনে তা ২৫ হাজার টাকা করা হয়েছে।

বিলে বলা হয়েছে, উচ্চ আদালতের একজন বিচারক তাদের বাসায় একজন বাবুর্চির পরিবর্তে প্রতি মাসে ১৬ হাজার টাকা করে ‘কুক ভাতা’ পাবেন। বর্তমান আইনে একজন বিচারক ‘ডমেস্টিক এইড’ ভাতা পান।

বিলে সেটা রাখা হয়নি।

বিলে বলা হয়েছে, বিচারকরা তাদের তাদের ইয়ারমার্কড, স্বতন্ত্র, একক বাসা, বাড়ি বা ফ্ল্যাটের ক্ষেত্রে একজন করে নিরাপত্তাপ্রহরী পদের সুবিধার পরিবর্তে প্রতি মাসে ১৬ হাজার টাকা সিকিউরিটি ভাতা প্রাপ্য হবেন। আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারকরা আগের মতো আট হাজার ও পাঁচ হাজার টাকা নিয়ামক ভাতা পাবেন।

 

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

Leave a Reply

চুরি করে নিউজ না করাই ভাল