«» মূলমন্ত্রঃ : সত্যের পথে,জনগনের সেবায়,অপরাধ দমনে,শান্তিময় সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে" আমরা বাঙালি জাতীয় চেতনায় বিকশিত মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার স্বপক্ষে সত্য এবং ধর্মমতে বস্তুনিষ্ঠ, সৎ ও সাহসী সাংবাদিকতায় সর্বদা নিবেদিত। «»

কভিড-১৯ : PCR পরীক্ষা

বুধবার, ০৮ এপ্রিল ২০২০ | ৪:৪৫ পূর্বাহ্ণ | 74 বার

কভিড-১৯ : PCR পরীক্ষা

মহানন্দা নিউজ-



 

করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির এখন পর্যন্ত নির্ভরযোগ্য পরীক্ষা PCR. করোনা রোগের উপসর্গ নিশ্চিত হলে, রোগীর নাকের ভিতর, মুখ বা ফুসফুসের মধ্য থেকে করোনাভাইরাসের RNA-কে শনাক্ত ও নিষিক্তকরণ করে Primers-এর সঙ্গে সম্মিলন ঘটিয়ে তাকে বহুগুণে বিভাজন বা amplification করা হয়। পরবর্তীতে ফ্লুরোসেন্ট মার্কারকে এই ভাইরাল কপির সঙ্গে সম্পৃক্ত করে তার উপস্থিতির মাধ্যমে নির্ণয় করা হয়। বেশি মাত্রায় উপস্থিত থাকলে পজিটিভ, না থাকলে নেগেটিভ বলা হয়।

কার এই পরীক্ষা করা উচিত আমেরিকাতে শুধু যে সব আক্রান্ত রোগীর এই পরীক্ষার ফলে তার চিকিৎসা ব্যবস্থা কি ধরনের হলো তার উন্নতি হবে অথবা যাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক অথবা আক্রান্ত ব্যক্তির অন্যান্য জটিল রোগ বিশেষ করে বয়স্ক, দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা, বিশেষ করে হার্ট, কিডনি, যকৃৎ বা ডায়াবেটিস আছে এবং সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক, নার্স ও হেলথকেয়ার ওয়ার্কার যাদের দ্বারা রোগের বিস্তার ঘটতে পারে তাদের ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধ করা হয় CDC’র মাধ্যমে।

আমাদের দেশে IEDCR-এর তত্ত্বাবধানে এই পরীক্ষা সম্পন্ন হচ্ছে। আমেরিকাতে তাদের CDC-র বাধ্যবাধকতা, সার্টিফাইড ল্যাবের স্বল্পতা ও প্রয়োজনীয় কিটের স্বল্পতার জন্য ঢালাওভাবে Covid-19 PCR করা হয়নি। তদ্রƒপ যুক্তরাজ্যসহ পাশ্চাত্যের অনেক দেশে ব্যয়বহুল হওয়াতে ও সম্ভাব্য ক্ষেত্রে চিকিৎসা বীমা সুরক্ষা না থাকাও একটা কারণ হতে পারে।

PCR ছাড়া রক্তের viral antibody test বা শ্বাসতন্ত্রের viral antigen test-সহ rapid Influenza পরীক্ষা করা যেতে পারে। যদিও এসব পরীক্ষা রোগীর রোগ ও চিকিৎসার জন্য কতটুকু সুফল বয়ে আনবে তা এই মুহূর্তে পুরোপুরি বলা সম্ভব নয়। কাজেই বর্তমান প্রেক্ষাপটে ও WHO নির্দেশিকা মতো করোনার লক্ষণ অনুসারে টেস্ট ছাড়া করোনার চিকিৎসা করা শ্রেয়। সাম্প্রতিককালে টিভি ও নিউজ মিডিয়াতে ঠান্ডা জ্বরে মৃত্যুর প্রাদুর্ভাব হঠাৎ করে প্রচারিত হচ্ছে। আমাদের মনে রাখা দরকার যে করোনা কিন্তু এক ধরনের ফ্লু বা ঠান্ডা রোগ। কাজেই PCR না করতে পারলেও, যে কোনো ঠান্ডা রোগকে করোনা ধরে নিয়ে চিকিৎসা করলে, আমাদের তথা জাতির জন্য মঙ্গলজনক হবে।

তাই এ বিষয়ে আমাদের সবাইকে যথেষ্ট সচেতন ও যত্নবান হতে হবে। প্রতিকার নয় প্রতিরোধ উত্তম।

অধ্যাপক ডা. এএইচএম ওয়ালিউল ইসলাম

ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজিস্ট

এভারকেয়ার হাসপাতাল, ঢাকা।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

সংসারের হাল ধরেও ভাটখৈর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে, জিপি-এ ৩.৭৮ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে নূরুজ্জামান

Development by: bdhostweb.com

চুরি করে নিউজ না করাই ভাল