«» মূলমন্ত্রঃ : সত্যের পথে,জনগনের সেবায়,অপরাধ দমনে,শান্তিময় সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে" আমরা বাঙালি জাতীয় চেতনায় বিকশিত মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার স্বপক্ষে সত্য এবং ধর্মমতে বস্তুনিষ্ঠ, সৎ ও সাহসী সাংবাদিকতায় সর্বদা নিবেদিত। «»

পুলিশের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন নাচোলের দুই বাবু

রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯ | ৮:৩১ অপরাহ্ণ | 228 বার

পুলিশের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন নাচোলের দুই বাবু

মহানন্দা নিউজ- চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রেজাউল করিম বাবু ও প্যানেল মেয়র ফারুক আহম্মেদ বাবু’র বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা শেষ পর্যন্ত থানা পুলিশের হাতে এসে পৌঁছেছে। হন্যে হয়ে পুলিশ খুঁজে বেড়ালেও নাচোল ছেড়ে আত্মগোপনে রয়েছেন দুই বাবু।

 

অবশেষে, নাচোল থানার অফিসার ইনচার্জ সেলিম রেজা গ্রেফতারী পরোয়ানা পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

জানা গেছে, নাচোল উপজেলা খাদ্য গোডাউনে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রেজাউল করিম বাবু’র নেতৃত্বে খাদ্য গোডাউনের এ এস আই মাসুদ রানা ও কুলি সর্দার মজিবুর রহমানের উপর হামলা চালানো হলে গোড়াউনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিউর রহমান বাদী হয়ে নাচোল থানায় ১টি মামলা দায়ের করেন। মামলার পর প্রধান আসামী করা হয় রেজাউল করিম বাবুকে। পুলিশ ভাইস চেয়ারম্যান রেজাউল করিম বাবুকে রাজশাহী থেকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। হাজত বাসের পর রেজাউল করিম বাবু জামিনে ছাড়া পান। ওই মামলার তদন্তে পুলিশ রাজেস ও সম্রাট এর জড়িত থাকার সম্পৃক্ততা পেয়ে চার্জসীট দাখিল করেন। গত ২০ অক্টোবর রাজেস ও সম্রাট আদালতে জামিন লাভের জন্য অত্মসমার্পন করলে বিজ্ঞ জুডিশিয়াল

ম্যাজিষ্ট্রেট আবু কাহার এর আমলী আদালত নাচোল, তাদের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

 

এদিকে, গত ২৯ অক্টোবর ওই মামলার ধার্য দিনে বিবাদী পক্ষের আইনজীবী তাদের জামিনের জন্য প্রার্থনা করেন। কিন্তু

বিজ্ঞ আদালত জামিন না মঞ্জুর করে আবারো তাদেরকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। সেই সাথে মামলার প্রধান আসামী নাচোল উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রেজাউল করিম বাবুর বিরুদ্ধেও গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন।

 

 

 

অপরদিকে, চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে ঋণ খেলাপি, চেক জালিয়াতি ও প্রতারণা মামলায় নাচোল পৌর সভার প্যানেল মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহম্মেদ বাবু’র ১ বছরের জেল ও ৩৩ লাখ টাকার অর্থদন্ড দিয়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জজ আদালতের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. শওকত আলী । স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড রহনপুর শাখা, বাদী হয়ে এম আই অ্যাক্ট সেশান ১০৪৯/১৭ ঋণ খেলাপি, প্রতারণা ও চেক জালিয়াতির মামলা দায়ের করলে মামলার

আসামী ফারুক আহম্মেদ বাবু আদালতে অনুপস্থিত থাকেন।

 

আদালতের রায়ের প্রেক্ষিতে শেষ পর্যন্ত গ্রেফতারী পরোয়ানা এসে পৌঁছায় নাচোল থানায়। আর এটা জানতে পেরে নাচোলের দুই বাবু আত্মগোপনে রয়েছেন বলে এলাকাবাসী মনে করছেন।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

বিরলে ৮নং-ধর্মপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি-আঃ মজিদ সম্পাদক-রতন চন্দ্র রায় নির্বাচিত

Development by: bdhostweb.com

চুরি করে নিউজ না করাই ভাল