«» মূলমন্ত্রঃ : সত্যের পথে,জনগনের সেবায়,অপরাধ দমনে,শান্তিময় সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে" আমরা বাঙালি জাতীয় চেতনায় বিকশিত মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার স্বপক্ষে সত্য এবং ধর্মমতে বস্তুনিষ্ঠ, সৎ ও সাহসী সাংবাদিকতায় সর্বদা নিবেদিত। «»

প্রথম পরীক্ষাতেই ফেল ভাইরাল সেই ভারতীয় উসাইন বোল্ট

বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯ | ৭:১৫ পূর্বাহ্ণ | 30 বার

প্রথম পরীক্ষাতেই ফেল ভাইরাল সেই ভারতীয় উসাইন বোল্ট
ভারতের মধ্যপ্রদেশের ১৯ বছর বয়সী যুবক রামেশ্বর গুরজার, ছবি: সংগৃহীত

সময়ের সেরা দ্রুতমানব উসাইন বোল্টকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিলেন মধ্যপ্রদেশের ১৯ বছর বয়সী যুবক রামেশ্বর গুরজার।

সম্প্রতি খালি পায়ে ১১ সেকেন্ডে ১০০ মিটার দৌড়ে রীতিমত হইচই ফেলে দিয়েছিলেন তিনি। তার দৌড়ের সেই ভিডিও দেশটির সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়ে। রাতারাতি সেলিব্রেটিতে পরিণত হন তিনি। তাকে বলা হচ্ছিল ভারতীয় উসাইন বোল্ট।

বিষয়টি নজরে পড়ে মধ্যপ্রদেশের ক্রীড়ামন্ত্রী জিতু পাওয়ারি। তিনি রামেশ্বরকে ‘দেশের সম্পদ’ বলে আখ্যা দেন।

গুরজারকে প্রস্তুত করে তুলতে নির্দেশও দেন তিনি। সেই নির্দেশ মোতাবেক তাকে প্রস্তুত করে সোমবার ভোপাল সাই সেন্টারে ট্রায়ালে নামানো হয়।

কিন্তু প্রথম পরীক্ষাতেই অকৃতকার্য হলেন এই ভারতীয় উসাইন বোল্ট। স্পোর্টস অথরিটি অব ইন্ডিয়ার (সাই) ট্রায়ালে সাত জনের মধ্যে সবার শেষে থেকে দৌড় শেষ করেছেন তিনি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, ১২.৯০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সবার শেষে ওই ট্রায়াল শেষ করতে পেরেছেন তিনি।

প্রথম পরীক্ষায় এমন ব্যর্থ হয়ে অনেকটাই হতাশ রামেশ্বর গুরজার। তবে এর জন্য বেশ কিছু কারণ জড়িত রয়েছে বলে জানান তিনি।

গুরজার বলেন, ‘আমি খালি পায়ে দৌড়ে অভ্যস্ত। জুতো পরে সিন্থেটিক ট্র্যাকে দৌড়ানোর অভ্যাস না থাকায় ট্রায়ালে ব্যর্থ হয়েছি। এছাড়াও প্রস্তুতির সময় কোমরে চোট পেয়েছি। তাই দ্রুত দৌড়াতে পারছি না আর। আগামী মাসে এসবের সঙ্গে অভ্যস্ত হয়ে গেলে ফল আরও ভালো হবে বলে আশা করছি।’

এ বিষয়ে ভারতের কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী রিজিজু এক টুইটবার্তায় জানান, ‘টিটি নগর স্টেডিয়ামে আজ ট্রায়ালের সময় ক্লান্ত হয়ে পড়েছিল রামেস্বর গুরজার। তাই সে ভাল পারফর্ম করতে পারেনি। আরও ভালো করতে যথেষ্ট সময় এবং প্রশিক্ষণের প্রয়োজন রয়েছে তার।’

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

সমুদ্র-দর্শন অথবা প্রেম- আমিনুল ইসলাম

Development by: bdhostweb.com

চুরি করে নিউজ না করাই ভাল