«» মূলমন্ত্রঃ : সত্যের পথে,জনগনের সেবায়,অপরাধ দমনে,শান্তিময় সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে" আমরা বাঙালি জাতীয় চেতনায় বিকশিত মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার স্বপক্ষে সত্য এবং ধর্মমতে বস্তুনিষ্ঠ, সৎ ও সাহসী সাংবাদিকতায় সর্বদা নিবেদিত। «»

কুমিল্লার হোমনা পৌর সভায় নিদির্ষ্ট স্থানে কোরবানি ও বর্জ্য পরিষ্কারের প্রস্তুতি

শুক্রবার, ০৯ আগস্ট ২০১৯ | ৪:৩৮ পূর্বাহ্ণ | 38 বার

কুমিল্লার  হোমনা পৌর সভায় নিদির্ষ্ট স্থানে কোরবানি ও বর্জ্য পরিষ্কারের প্রস্তুতি

হোমনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ


কুমিল্লার হোমনায় নির্দিষ্ট স্থানে কোরবানির পশু জবাই এবং আবর্জনা তাৎক্ষণিকভাবে অপসারণ করে পরিবেশ দূষণমুক্ত রাখতে  আজ বৃহস্পতিবার  কাউন্সিলরদের  অংশগ্রহনে মতবিনিময় সভা  অনুষ্ঠিত হয়েছে।  পৌর মেয়র  এ্যাড. নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সভায় ১২ জন কাউন্সিলর ছাড়াও পৌরসভার সকল কর্মকর্তা কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।

ওই সভায় সিদ্ধান্ত হয় যে জনগণের চলাচলের পথ উন্মুক্ত রাখতে সড়কে কোরবানি দেওয়া যাবে না। কোরবানির পর প্রতিটি  ওয়ার্ডের পক্ষ থেকে পশুর রক্ত ও পরিত্যক্ত বর্জ্য অপসারণ ও গর্তে পুঁতে ফেলতে হবে এবং কোনোভাবে পুকুর, নদী বা ডোবায় ফেলা যাবে না।

সভায় মেয়র বলেন, জনপ্রতিনিধিরা নিজ নিজ এলাকা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখলে পুরো দেশই দূষণমুক্ত থাকবে।

 

তিনি  আরো বলেন  জনগণের বেশির ভাগই পরিবেশ সম্পর্কে অসচেতন। আবার অনেকে সচেতন হয়েও নিজের বাড়ি ও জমি বাঁচিয়ে সরকারি  সড়ক-মহাসড়কের ওপর পশু জবাই করে থাকেন। কাজটি তাঁরা শুধু কোরবানির সময় করেন না, সারা বছরই করে থাকেন। কোরবানির সময় বাড়তি উদ্বেগের কারণ হলো, একসঙ্গে অনেক বেশি পশু জবাই করা হয় এবং এর বর্জ্যের পরিমাণও অনেক বেশি। আমরা প্রতিটি ওয়ার্ডের জন্য ব্লিচিং পাউডার দেয়া হবে। যাতে কোরবানির পশু জবাই করার পর পর  এ পাউডার ছিটিয়ে দিতে পারেন।

আপনারা জানেন,দেশে ঙেঙ্গু রোগীর সংখ্যাদিন দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।   পৌর সভার পক্ষ থেকে মশক নিধনে গণসচেতনতার সৃষ্ঠি সহ ফগার মিশিনের সাহায্যে মশা নিধন কার্যক্রম চলছে।  তাই আমরা সবাই সচেতনতার সাথে নিজ নিজ আঙ্গিনা পরিস্কার রাখবে।  পরে পৌর মেয়র বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলরদের মাঝে ব্লিচিং পাউডার বিতরণ করা হয়।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

জাকির নায়েকের বসবাসের অনুমতি বাতিল করা হতে পারে: মাহাথির

Development by: bdhostweb.com

চুরি করে নিউজ না করাই ভাল