«» মূলমন্ত্রঃ : সত্যের পথে,জনগনের সেবায়,অপরাধ দমনে,শান্তিময় সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে" আমরা বাঙালি জাতীয় চেতনায় বিকশিত মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার স্বপক্ষে সত্য এবং ধর্মমতে বস্তুনিষ্ঠ, সৎ ও সাহসী সাংবাদিকতায় সর্বদা নিবেদিত। «»

তারা কেউ ভিআইপি নন, সার্ভেন্ট অব দ্য স্টেট: হাইকোর্ট

বৃহস্পতিবার, ০১ আগস্ট ২০১৯ | ৭:৪৭ পূর্বাহ্ণ | 41 বার

তারা কেউ ভিআইপি নন, সার্ভেন্ট অব দ্য স্টেট: হাইকোর্ট

এক যুগ্ম সচিবের অপেক্ষায় প্রায় তিন ঘণ্টা ফেরি না ছাড়ায় স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষের মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট।

আদালত বলেছেন, আমরা ঘটনাটি জানি। তারা (যুগ্ম সচিব) কেউ ভিআইপি নন, তারা সার্ভেন্ট অব দ্য স্টেট। সারা বিশ্বে অ্যাম্বুলেন্স, অগ্নিনির্বাপণে ফায়ার সার্ভিস ও নিরাপত্তার জন্য পুলিশের গাড়ি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যেতে দেয়া হয়। আর এখানে তার উল্টোটা ঘটছে।

এক রিটের শুনানিতে বুধবার বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ মন্তব্য করেন।

আদালত আরও বলেন, ভিআইপি কারা সেটা আইনে বলা আছে। বিশেষ করে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার জন্য যে কোনো ধরনের সিদ্ধান্ত নেয়া যেতে পারে। কিন্তু তা অন্য কারও ক্ষেত্রে নয়। ভিআইপি থাকলেও অ্যাম্বুলেন্সকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আগে যেতে দেয়া হয়। কারণ এর সঙ্গে একজন মানুষের জীবন-মৃত্যুর বিষয়টি জড়িয়ে থাকে।

স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষের মৃত্যুর ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

শুনানি শেষে তিতাসের পরিবারকে তিন কোটি টাকা কেন ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে না এবং তদন্তপূর্বক দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নয়, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট।

কাঁঠালবাড়ি ঘাটে তদন্ত কমিটির জিজ্ঞাসাবাদ : মাদারীপুর প্রতিনিধি জানান, ফেরিতে স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষের মৃত্যু তদন্তে গঠিত নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের কমিটি বুধবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। বিভিন্ন ব্যক্তি ও গণমাধ্যমকর্মীদের সাক্ষাৎকার নেন কমিটির সদস্যরা।

তদন্ত কমিটির প্রধান নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব শাহনেওয়াজ দিলরুবা খান দুপুর ১২টার দিকে কুমিল্লা ফেরিযোগে কাঁঠালবাড়ি ফেরিঘাটে যান। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন একই মন্ত্রণালয়ের উপসচিব ও তদন্ত কমিটির আরেক সদস্য শাহ মো. হাবিবুর রহমান।

প্রথমে তারা মাদারীপুর জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলামের সাক্ষাৎকার নেন। এরপর বিআইডব্লিউটিসির কাঁঠালবাড়ি ঘাটের ব্যবস্থাপক আবদুস সালাম মিয়া, উচ্চমান সহকারী ফিরোজ আলাম, টিএসআই নজরুল ইসলামকে তারা জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীদের তারা সাক্ষাৎকার নেন। এছাড়া ঘাট এলাকায় বিভিন্ন দোকানদার এবং ওইদিনের প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলেন। তদন্ত টিমের সঙ্গে বিআইডব্লিউটিসির জিএম আশিকুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

তদন্তের বিষয়ে যুগ্ম সচিব শাহনেওয়াজ দিলরুবা খান জানান, ঘটনাস্থল এবং সে রাতে কর্তব্যরতদের সঙ্গে কথা বলেছি।

২৫ জুলাই রাতে সরকারের এটুআই প্রকল্পের যুগ্ম সচিব আবদুস সবুর মণ্ডলের গাড়ির অপেক্ষায় প্রায় তিন ঘণ্টা দেরিতে ছাড়ে ফেরি। দেরিতে ফেরি ছাড়ায় চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়ার পথে স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষের মৃত্যু হয় বলে তার পরিবারের অভিযোগ। এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশের পর দেশব্যাপী সমালোচনার ঝড় উঠে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

সমুদ্র-দর্শন অথবা প্রেম- আমিনুল ইসলাম

Development by: bdhostweb.com

চুরি করে নিউজ না করাই ভাল