«» মূলমন্ত্রঃ : সত্যের পথে,জনগনের সেবায়,অপরাধ দমনে,শান্তিময় সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে" আমরা বাঙালি জাতীয় চেতনায় বিকশিত মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার স্বপক্ষে সত্য এবং ধর্মমতে বস্তুনিষ্ঠ, সৎ ও সাহসী সাংবাদিকতায় সর্বদা নিবেদিত। «»

দর্শনার্থীদের ভিড় পর্যটন কেন্দ্রে

রবিবার, ০৯ জুন ২০১৯ | ৫:৩৯ পূর্বাহ্ণ | 230 বার

দর্শনার্থীদের ভিড় পর্যটন কেন্দ্রে

ঈদের ছুটিতে বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে দর্শনার্থীদের ভিড়ে মুখর হয়ে উঠেছে। ঈদের ৪র্থ দিনে ও আনন্দ উচ্ছ্বাসে মেতে উঠেন পর্যটকরা। পরিবার, বন্ধু, স্বজনদের কোনো কোনো পর্যটন কেন্দ্রে জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে। যুগান্তর প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

বান্দরবান : ছুটি মানেই প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি বান্দরবানে পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড়। পর্যটনের অফুরন্ত সম্ভাবনাময় বৈচিত্র্যময় প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের জেলা বান্দরবানে শুক্র-শনিবার আকর্ষণীয় ট্যুরিস্ট স্পট নীলাচল, মেঘলা, স্বর্ণমন্দির, চিম্বুক, নীলগিরি, শৈলপ্রপাত, রিজুকঝর্ণা, কিংবদন্তি বগালেক, ডিম পাহাড় চূড়া সবখানেই পর্যটকদের ঘুরে বেড়াতে দেখা গেছে। সাঙ্গু নদীতে নৌকা নিয়েও ঘুরে বেড়িয়েছেন পর্যটকরা।

বলা যায় পর্যটকের পদচারণায় মুখরিত ছিল জেলার দর্শণীয় স্থানগুলো। কিন্তু সেটি অন্য বছরের তুলনায় সংখ্যায় কম। তবে পর্যটন স্পটগুলো ভিড় থাকলেও আবাসিক হোটেল-মোটেল-রিসোর্ট গেস্টহাউসগুলোতে আশানুরুপ পর্যটকের আগমন ঘটেনি দাবি ব্যবসায়ীদের। হোটেল ফোরস্টারের স্বত্বাধিকারী রিপন চৌধুরী ও পালকি গেস্টহাউসের ম্যানেজার মোহাম্মদ শাহীন বলেন, মুষ্টিমেয় কয়েকটা রিসোর্ট-হোটেল ছাড়া সবখানেই রুম ফাঁকা ছিল এবার। কিন্তু অন্যবার ঈদের অনেক আগেই হোটেলের সবগুলো রুম বুকিং হয়ে যেত।

খাগড়াছড়ি : ঈদের পরদিন থেকেই ভিড় বাড়ছে খাগড়াছড়ির পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে। হোটেল-মোটেল ব্যবসায়ীরা জানান, ঈদের ছুটিতে হোটেলের অধিকাংশ কক্ষ বুকিং হয়ে গেছে। খাগড়াছড়ির জেলা শহরের অদূরে রহস্যময় সুড়ঙ্গ, রিছাং ঝরনা এবং জেলা পরিষদের ঝুলন্ত ব্রিজে প্রতিদিনই পর্যটকদের উপচেপড়া ভিড়। এছাড়া প্রকৃতির অসামান্য সৌন্দর্য্য দেখতে পর্যটকরা জেলা সদরের বাইরের পানছড়ি অরণ্য কুটির, নুনছড়ির দেবতা পুকুর, মাটিরাঙার শতবর্ষী বটবৃক্ষ, দীঘিনালা তৈদুছড়া ঝরনা, মায়াবিনী লেকেসহ বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রে ভিড় করছে। সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, ‘খাগড়াছড়ির অন্যতম প্রধান পর্যটন কেন্দ্র রিছাং ঝরনা ও আলুটিলায় পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড়। পর্যটকের আগমন বেড়েছে খাগড়াছড়ির অন্যতম জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্র রিছাং ঝরনায়। পর্যটকের ভিড় খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ পার্কেও ঝুলন্ত ব্রিজেও। পর্যটকদের আগমনে মুখরিত খাগড়াছড়ির আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী পোশাকের দোকানগুলো। দোকানিরা বলেন, পর্যটকরা আমাদের মূল ক্রেতা।

চৌহালী (সিরাজগঞ্জ) : সিরাজগঞ্জের দক্ষিণ অঞ্চলের মানুষের চিত্তবিনোদনের অন্যতম প্রধান স্পট চৌহালী উপজেলার এনায়েতপুর যমুনা স্পার ও বেতিল স্পার বাঁধসহ চৌহালী শহর রক্ষা বাঁধে বিনোদন পিপাসু মানুষের ঢল নেমেছে। বিশেষ করে যমুনা তীরে নির্মিত আন্তর্জাতিক মানের ৮শ’ শয্যার খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতাল, ক্যান্সার হসপিটাল, বিশ্ববিদ্যালয়, তাঁত শিল্প এবং যমুনার পাশেই দৃষ্টিনন্দন কারুকাজ খচিত খাজা এনায়েতপুরীর মাজার দেখতে ভ্রমণ পিয়াসুদের পদচারণায় মুখরিত হয় পুরো এলাকা।

বাগাতিপাড়া (নাটোর) : পরিবার-পরিজন নিয়ে মানুষের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে বাগাতিপাড়ার ইউএনও পার্ক। বড়াল নদীর তীরের এই অপরূপ সৌন্দর্য উপভোগ করতে বাগাতিপাড়াসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ভ্রমণ পিপাসুরা আসছেন এই পার্কটিতে। নাটোর সদর থেকে মাত্র ১৪ কিলোমিটার দক্ষিণে বাগাতিপাড়া উপজেলা পরিষদের পেছনে মালঞ্চি রেলব্রিজ এলাকায় পার্কটি অবস্থিত।বড়াল নদীতে তেমন পানি না থাকলেও পাশাপাশি দুটি ব্রিজ বাড়িয়ে দিয়েছে এই পার্কের সৌন্দর্য। ঈদের দিন থেকেই পার্কটিতে ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। এমনকি ঈদের তৃতীয় দিন শুক্রবারেও এখানে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। কেউ এসেছেন বন্ধু বান্ধবীদের সঙ্গে দল বেঁধে, কেউবা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে। পরিবার-পরিজন, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব নিয়ে ঘোরাঘুরি আর আনন্দের মধ্য দিয়েই তারা ভাগ করছেন ঈদের আনন্দ।

কাউনিয়া (রংপুর) : কাউনিয়ায় বিনোদনের তেমন জায়গা না থাকায় তিস্তা রেলওয়ে ও সড়ক সেতুকে বিনোদনের একমাত্র স্থান হিসেবে বেছে নিয়েছে বিনোদন প্রেমী মানুষরা। ঈদের দিন থেকে শুরু করে শনিবারও হাজার হাজার মানুষের ঢল নামে তিস্তা নদীর পাড়ে সেতু এলাকায়। তিস্তা পাড়ের নির্মল হাওয়া, নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা ও নৌকা ভ্রমণ আনন্দ প্রিয় মানুষকে ক্ষণিকের জন্য হলেও অন্য জগতে নিয়ে যায়। কেউ কেউ শ্যালোচালিত আবার কেউ ডিঙ্গি নৌকা ভাড়া করে তিস্তা নদীর এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ঘুড়ে বেড়ায়।

 

ও/আ

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

বিরলে ৮নং-ধর্মপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি-আঃ মজিদ সম্পাদক-রতন চন্দ্র রায় নির্বাচিত

Development by: bdhostweb.com

চুরি করে নিউজ না করাই ভাল