«» মূলমন্ত্রঃ : সত্যের পথে,জনগনের সেবায়,অপরাধ দমনে,শান্তিময় সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে" আমরা বাঙালি জাতীয় চেতনায় বিকশিত মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার স্বপক্ষে সত্য এবং ধর্মমতে বস্তুনিষ্ঠ, সৎ ও সাহসী সাংবাদিকতায় সর্বদা নিবেদিত। «»

পাকিস্তান সীমান্তে ১৪ হাজার বাঙ্কার নির্মাণ করছে ভারত

শুক্রবার, ০৭ জুন ২০১৯ | ৮:১৩ অপরাহ্ণ | 67 বার

পাকিস্তান সীমান্তে ১৪ হাজার বাঙ্কার নির্মাণ করছে ভারত

জম্মু-কাশ্মির সীমান্তে ভারতীয়দের আশ্রয়ের

জন্য ১৪ হাজার ৪০০টি কমিউনিটি বাঙ্কার তৈরি করছে

দেশটির সরকার।

বর্ডার এরিয়া ডেভেলপমেন্ট প্রোজেক্ট

(বিএডিপি) প্রকল্পের অধীনে এসব বাঙ্কার নির্মিত

হচ্ছে। এজন্য বাঙ্কার তৈরিতে স্থানীয়রা

নিজেদের জমি দিয়েছেন। প্রকল্প বাস্তবায়ন

করতে ৪১৫ কোটি ৭৩ টাকা বরাদ্দ করেছে

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার।

পাকিস্তান প্রায়ই সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘন করে এমন

অভিযোগ এনে সীমান্তের বাসিন্দাদের নিরাপদ

আশ্রয়ের জন্য এসব কমিউনিটি বাঙ্কার তৈরি হচ্ছে

বলে জানিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার।

সীমান্ত সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে যাতে জম্মু-

কাশ্মিরের বেসামরিক নাগরিকদের প্রাণহানি না হয়,

সেই লক্ষ্যেই এসব বাঙ্কার নির্মাণ করা হচ্ছে

বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে ভারত সরকার।

সেখানে আরও জানানো হয়, যুদ্ধ পরিস্থিতিতে

বাঙ্কারগুলোর প্রত্যেকটিতে প্রায় দেড় হাজার

জন মানুষ থাকতে পারবেন। পুঞ্চ, রাজৌরি, খাটুয়া ও

সাম্বা জেলায় স্বতন্ত্র ও কমিউনিটি বাঙ্কার তৈরি করা

হবে।

গত বুধবার এ প্রকল্পের অধীনে রাজৌরির কালসিয়ান

এলাকায় সীমান্তবর্তী স্থানীয় একটি স্কুলের

জমিতে প্রথম বাঙ্কারটি তৈরি করা হয়। স্কুলের ছাত্ররা

ওই বাঙ্কারটি দেশটির সেনাবাহিনীকে উৎসর্গ

করে।

এ বিষয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনীর নর্দার্ন

কমান্ডের এক কর্মকর্তা বলেন, আগামী কয়েক

মাসের মধ্যে ৭৫ শতাংশ বাঙ্কার তৈরির কাজ শেষ

হয়ে যাবে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অনেকে বাঙ্কার

তৈরির জন্য তাদের জমি দিয়েছে।

ভারতীয় সেনা সূত্রে অভিযোগ, ২০১৮ সালে ২

হাজার ৯৩৬ বার সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান

সেনারা। সে সংঘর্ষে গুলি এবং বোমার আঘাতে ৬১

জন নিহত ও ২৫০ জন আহত হয়েছেন বলে খবর।

এসব হতাহতের মধ্যে সাধারণ মানুষের পাশপাশি সেনা

কর্মকর্তা ও কর্মীরাও রয়েছেন।

তাই সীমান্তের নিরাপত্তা বাহিনী ও সীমান্তবর্তী

সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে এসব বাঙ্কার

তৈরি করছে ভারত।

সূত্র: ইকোনমিক্স টাইম, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

 

ও/আ

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ-

Development by: bdhostweb.com

চুরি করে নিউজ না করাই ভাল