«» মূলমন্ত্রঃ : সত্যের পথে,জনগনের সেবায়,অপরাধ দমনে,শান্তিময় সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে" আমরা বাঙালি জাতীয় চেতনায় বিকশিত মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার স্বপক্ষে সত্য এবং ধর্মমতে বস্তুনিষ্ঠ, সৎ ও সাহসী সাংবাদিকতায় সর্বদা নিবেদিত। «»

একজন অমিত শাহ দরকার কংগ্রেসে: মেহবুবা

শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯ | ১০:৫৫ পূর্বাহ্ণ | 51 বার

একজন অমিত শাহ দরকার কংগ্রেসে: মেহবুবা

২০১৪-এ ছিল মোদি ঝড়। ২০১৯-এ সেই ঝড়ের

গতিবেগ যে অনেক বেড়েছে তা বলাবাহুল্য। ফল

ঘোষণার পরই তা আরেকবার প্রমাণিত হয়েছে।

এককভাবে গতবারের চেয়ে এবার আসন আরও

বেড়েছে। জোটগতভাবে পার হয়েছে তিনশ’র

ঘর। গেরুয়া শিবিরের এ অভাবনীয় ফলাফলের জন্য

উঠে আসছে মোদির সেনাপতি অমিত শাহের নাম।

বিরোধী শিবিরও অমিতের ক্ষুরধার বুদ্ধির তারিফ না

করে পারছে না। প্রবল বিজেপিবিরোধী জম্মু ও

কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী হতে মেহবুবা মুফতির

মুখেও অমিত স্তুতি। ঐতিহাসিক জয়ের জন্য ভারতের

প্রধানমন্ত্রীকে এদিন টুইট করে শুভেচ্ছা জানান

মেহবুবা মুফতি। তিনি লেখেন, ‘আজকের দিনটা

নিঃসন্দেহে বিজেপি ও তাদের সহযোগী দলের

জন্য। প্রশংসার এ অংশটুকু বিজেপি ও নরেন্দ্র

মোদির জন্য। পরের লাইনে কংগ্রেসকে খোঁচা

মেরে মেহবুবা লেখেন, ‘কংগ্রেসের এখন

অমিত শাহ দরকার।’ চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে

কাশ্মীরের পুলওয়ামায় হয় ভারতীয় সেনার

কনভয়ে জঙ্গি আক্রমণ। গোটা কাশ্মীরজুড়ে

শুরু হয়ে যায় জঙ্গি দমন নিয়ে তোলপাড়। এরই

মধ্যে চলে আসে ভোট পর্ব। ভোট হয়

কাশ্মীরেও। ৬টি আসনের জম্মু ও কাশ্মীর

লোকসভা নির্বাচনে ২০১৯ সালে পাঁচ দফা ভোট

হয়। ১১, ১৮, ২৩, ২৯ এপ্রিল ও ৬ মে-র ভোটে

জম্মু ও কাশ্মীর নিজের মত প্রকাশ করেছে। ২৩

মে সেই ভোটের ফলাফল প্রকাশ হতেই দেখা

যায়, ৬টি আসনের মধ্যে ২টিতে এগিয়ে বিজেপি।

২টিতে এগিয়ে ন্যাশনাল কনফারেন্স। বাকি ২টিতে

জিতছেন সেখানে নির্দলীয় প্রার্থীরা। ফলে

পিডিপির ঝুলিতে কিছুই নেই। কার্যত বিজেপির হাত

ছাড়ার পর থেকেই মেহবুবা মুফতির পিডিপি এখন

পিছিয়ে।

 

ও/আ

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ-

Development by: bdhostweb.com

চুরি করে নিউজ না করাই ভাল