«» মূলমন্ত্রঃ : সত্যের পথে,জনগনের সেবায়,অপরাধ দমনে,শান্তিময় সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে" আমরা বাঙালি জাতীয় চেতনায় বিকশিত মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার স্বপক্ষে সত্য এবং ধর্মমতে বস্তুনিষ্ঠ, সৎ ও সাহসী সাংবাদিকতায় সর্বদা নিবেদিত। «»

টনসিল ব্যথা দূর করার ঘরোয়া ৫ টোটকা

বুধবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ৭:১২ পূর্বাহ্ণ | 116 বার

শীতের সময় একটি রোগ ঘরে ঘরে

ছড়িয়ে পড়ে। সেটি হচ্ছে টনসিল। এই ব্যথা

অনেক সময়ই যন্ত্রণাদায়ক হয়ে ‍ওঠে।

শীতকাল ছাড়াও আবহাওয়া একটু ঠাণ্ডা থাকলে

বর্ষাকালেও টনসিলের সমস্যা দেখা দিতে

পারে। টনসিল ব্যথায় আমরা ছুটি ডাক্তারের

কাছে। কিন্তু ঘরে বসেই টনসিল ব্যথা থেকে

মুক্তি পাওয়া যেতে পারে।

ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে টনসিলের ব্যথা

হয়ে থাকে। সর্দি-কাশির জন্য দায়ী

ভাইরাসগুলোই টনসিলের এ সংক্রামণের জন্য

দায়ী।

টনসিল ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়ার ঘরোয়া ৫

প্রতিকার সম্পর্কে নিচে দেয়া হলো-

লবণ পানি

কুসুম কুসুম গরম পানিতে আলতো লবণ নিয়ে

গড়গড়া করলে টনসিল ব্যথা থেকে তাৎক্ষণিক

মুক্তি পাওয়া সম্ভব। এটি টনিকের মতো কাজ

করে। উষ্ণ লবণ পানি দিয়ে গড়গড়া করলে

গলায় ব্যাকটেরিয়ার সংক্রামণও দূর হয়ে থাকে।

চায়ে আদা কুচি

দেড় থেকে দুই কাপ পানিতে এক চামচ আদা

কুচি আর চা পাতা দিয়ে ১০ মিনিট ফুটিয়ে নিন। দিনে

অন্তত ৪ থেকে ৫ বার এভাবে চা খেলে

উপকার পাবেন। আদার অ্যান্টি ব্যকটেরিয়াল আর

অ্যান্টি ইনফালামেন্টরি উপাদান সংক্রামণ ছড়াতে বাধা

দেয়। ফলে টনসিলের ব্যথা কমে যায়।

গরম পানি ও লেবুর রস

এক গ্লাস সামান্য গরম পানিতে ১ চামচ লেবুর রস,

১ চামচ মধু, আধা চামচ লবণ ভালো করে মিশিয়ে

নিন। এটি টনসিল ব্যথা দূর করার জন্য অত্যন্ত

কার্যকরী উপাদান।

চা পাতা ও মধু

এক কাপ গরম পানিতে আধা চামচ সবুজ চা পাতা আর

এক চামচ মধু দিয়ে ১০ মিনিট ফুটিয়ে নিন। এ চায়ে

অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট রয়েছে, যা সব রকম

ক্ষতিকর জীবাণুকে ধ্বংস করে।

হলুদ ও ছাগলের দুধ

ছাগলের দুধ টনসিলের ব্যথা দূর করতে বেশ

কার্যকরী। ছাগলের দুধে অ্যান্টিবায়োটিক

উপাদান আছে। তবে ছাগলের দুধ না পেলে

গরুর দুধে এক চামচ হলুদ মিশিয়ে সামান্য গরম

করে খেলে উপকার পাওয়া যায়।

 

ও/আ

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

বাগেরহাট  মোরেলগঞ্জ প্রেস ক্লাবের নির্বাচন সস্পন্ন  লিপন সভাপতি, মাসুম সম্পাদক

Development by: bdhostweb.com

চুরি করে নিউজ না করাই ভাল